প্রশিক্ষণ কার্যক্রম
  • প্রার্থী/প্রার্থীনি ভর্তি হওয়ার পর প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ক্লাস সময় ও তারিখ অফিস হইতে জানিয়া লইতে হবে। তাৎক্ষনিক ভাবে ক্লাস সময় ও তারিখ জানানো না গেলে প্রার্থী/প্রার্থীনিকে ফোনের মাধ্যমে জানানো হবে। অথবা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রার্থী/প্রার্থীনিকে ক্লাস সময় ও তারিখ জানিয়া লইতে হবে।

ভর্তির যোগ্যতা
  • এসএসসি / এসএসসি ভোকেশনাল

  •  জেএসসি

  • মাধ্যমিক / উচ্চ মাধ্যমিক যে-কোনো বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করে অথবা পড়াশোনার পাশাপাশি  করতে পারবে । 

ভর্তি হওয়ার পরবর্তী নিয়মবলী
  • ১. প্রার্থী/প্রার্থীনি যে শিফটে ভর্তি হবে কেবলমাত্র সেই শিফটে সে বিষয়ে পড়তে হবে। কোন প্রার্থী/প্রার্থীনি শিফট/বিষয় পরিবর্তন করতে চাইলে ক্লাস আরম্ভ হওয়ার ৩ দিন পূর্বে অফিসে লিখিতভাবে জানাতে হবে এ ক্ষেত্রে সুযোগ থাকলে ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।

  • ২. প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে নিয়মিত ও যথাসময়ে ক্লাসে উপস্থিত থাকতে হবে। যে সকল প্রশিক্ষণার্থীর ক্লাসে উপস্থিতি শতকরা ৬০ ভাগের কম হবে। সেই সকল প্রশিক্ষণার্থীরা চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারবে না।

  • ৩. কোন প্রশিক্ষণার্থী অনুমতি ছাড়া একটানা ৭ দিন ক্লাসে অনূপস্থিত থাকলে। প্রশিক্ষণার্থীকে ফোনের মাধ্যমে জানানো হবে অথবা বর্তমান ঠিকানায় পত্র প্রেরণ করা হবে এবং পরবর্তীতে অনুপস্থিত থাকলে তাহার ভর্তি বাতিল বলিয়া গণ্য হবে এবং পুনরায়-ভর্তি ফি প্রদান পূর্বক ভর্তি হতে হবে।

  • ৪. প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত কোন সমস্যার উদ্ভব হলে শ্রেণী শিক্ষকের মাধ্যমে সুপারিশসমুহ পরিচালক/উপ-পরিচালক বরাবরে আবেদন করতে হবে।

  • ৫. কোন প্রশিক্ষণার্থী কারিগরি যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নিয়ম-কানুন ও শৃঙ্খলা বিরোধী কোন প্রকার কার্য বা আচরন করলে কেন্দ্রর বিধি অনুযায়ী তাহার ভর্তি বাতিল সহ তার বিরুদ্ধে শাস্তি মুলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রশিক্ষণ পদ্ধতি
  • ১. সিলেবাস অনুসারে ধারাবাহিক ভাবে নিয়ম মোতাবেক বক্তব্য পেশ।

  • ২. প্রতিষ্ঠান নিজস্ব ফটোকপি নোট সিট প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে বিতরন।

  • ৩. সহজ সরল ভাষায় বক্তব্য প্রদান।

  • ৪. প্রশিক্ষণার্থী ও প্রশিককের খোলাখুলি প্রশ্নোত্তর।

  • ৫. দলগত আলোচনা ও সিদ্বান্ত গ্রহন।

  • ৬. প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে হতে-কলমে প্রশিক্ষণ।

পরিচয় পত্র
  • ১. ভর্তি হওয়ার পর পরই প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি পরিচয় পত্রের জন্য প্রশিক্ষণ বিভাগের রেজিষ্ট্রার কার্যলয়ে জমা দিতে হবে।

  • ২. পরিচয় পত্রের ছবি জমা দেওয়ার সময় রেজিষ্ট্রার কার্যালয় হতে ছাপানো “আইডি ফরম” বিনামল্যে সংগ্রহ করতে হবে। আইডি ফরমটি পূরণ করে ছবি ও নির্ধারিত ফি একশত টাকা জমা প্রদান করতে হবে এবং পরবতী সপ্তাহে প্রশিক্ষণার্থী তাহার পরিচয় পত্র রেজিষ্ট্রার কার্যালয় হতে সংগ্রহ করতে হবে।

  • ৩. পরিচয় পত্র পাওয়ার পর প্রত্যেক বিভাগের প্রশিক্ষণার্থী তাহার নিজ নিজ পরিচয় পত্র ধারণ পূর্বক কারিগরি যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রর কার্যালয়ে প্রবেশ করতে হবে।

  • ৪. পরিচয় পত্র হারিয়ে গেলে থানায় ডায়েরী করতে হবে এবং পরবতীতে ডায়রী নম্বও দিয়ে পরিচালক/উপ-পরিচালক বরাবর আবেদনের মাধ্যমে নতুন পরিচয় পত্র সংগ্রহ করা যাবে।

পরীক্ষাসমূহ
  • ১. প্রশিক্ষণার্থীর নৈব্যক্তিক, রচনামূলক, মৌখিক, ক্লাস ব্যবহারিক, শৃংখলা ও উপস্থিতি ইত্যাদি পরীক্ষায় সন্তোষজনক ভাবে উত্তীর্ণ হতে হবে।

  • ২. সকল টিউটোরিয়াল পরীক্ষার উত্তীর্ণ না হলে চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে পারবে না।

  • ৩. প্রত্যেক কোর্সের নির্ধারিত সময়ে নৈর্ব্যক্তিক, রচনামূলক, মৌখিক, ক্লাস টেষ্ট, ব্যবহারিক, উপস্থিতি/চুড়ান্ত ও অন্যান্য পরীক্ষা নেওয়া হবে এবং উক্ত পরীক্ষা সমুহ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও কোর্স সমন্বয়কারী কর্তৃক নিয়ন্ত্রন করা হবে।

  • ৪. সকল পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও উত্তর পত্র, ব্যবহারিক যন্ত্রপাতি ও যাবতীয় কাচামাল অফিস কর্তৃক সরবরাহ করা হবে।

  • ৫. প্রত্যেক পরীক্ষার প্রবেশ পত্র দেওয়া হবে। প্রবেশ পত্র ছাড়া পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

  • ৬. সিলেবাস অনুযায়ী সেমিষ্টার পদ্বতিতে পরীক্ষা সমুহ অনুষ্ঠিত হবে। প্রশিক্ষণার্থীদের সকল পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে হবে।

পরীক্ষা ব্যবস্থাপনা
  • ১. পরীক্ষায় যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট সিনেট তৈরী করা হবে। পরীক্ষা সংক্রান্ত নীতি মালা প্রণয়ন, সিদ্বান্ত গ্রহন ফলাফল ঘোষনা বৃত্তি প্রদান ইত্যাদি যাবতীয় কার্যাদিউক্ত উক্ত সিনেট সম্পাদন করবে। তবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়/বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়/যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর অনুমোদন ক্রমে গ্রহন করবেন।

  • ২. কোন প্রশিক্ষণার্থী যে কোন একটি পরীক্ষায় অংশ গ্রহনে ব্যর্থ হলে ঐ পরীক্ষা নির্ধারিত জরিমানা সহ পরীক্ষা দিতে হবে অন্যথায় সনদপত্র প্রদানে সমস্যা দেখা দিবে।

  • ৩. প্রশিক্ষণার্থী কেন্দ্র কর্তৃক সরবরাহকৃত খাতায় নিজ রোল নম্বর, রেজিষ্ট্রেশন নম্বর, সেশন ব্যাচ নম্বর বিষয় ও নাম স্পষ্ট অক্ষরে লিখতে হবে। অন্যথায় তাহার পরীক্ষার খাতা বাতিল বলিয়া গণ্য করা হবে।

  • ৪. প্রশিক্ষণার্থী পরীক্ষার হলে কলম, পরিচয় পত্র, প্রবেশ পত্র বা পরীক্ষার বিষয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট বস্তু ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে আনতে পারবেনা।

  • ৫. পরীক্ষার হলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি এবং অসদুপায় অবলম্বনকারী প্রশিক্ষণার্থীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফলাফল পদ্ধতি
  • ১. প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীদের পরীক্ষার ফলাফল নোটিশ বোর্ডে প্রকাশ করা হবে।

  • ২. প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীদের পরীক্ষার ফলাফল প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

  • ৩. নৈর্ব্যক্তিক, রচনামুলক, মৌখিক, ক্লাস টেষ্ট, ব্যবহারিক শৃঙ্খলা ও ক্লাস উপস্থিতির উপর মার্ক বন্টন করা হবে। প্রশিক্ষণার্থীকে প্রত্যেক পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। এই সকল পরীক্ষা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়/বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়/যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কর্তৃক গ্রহন করা হবে।

  • ৪. প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীর পরীক্ষার চুড়ান্ত ফলাফল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়/বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড/যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়/যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর পাঠানো হবে। প্রশিক্ষণার্থীর অর্জিত ফলাফলের উপর সনদ পত্র করা হবে।

বেতন পরিশোধ সংক্রান্ত
  • ১. এককালীন কোর্স ফি পরিশোধের ক্ষেত্রে প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীকে কোর্সের বেতন ও অন্যান্য ফি ভর্তির সময় পরিশোধ করতে হবে।

  • ২. কিস্তিতে কোর্স ফি পরিশোধের ক্ষেত্রে প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীকে ভর্তি ফি পরিশোধ করে ভর্তির কাজ সম্পূর্ণ করতে হবে।

  • ৩. কোন ছাত্র/ছাত্রী তার সাময়িক অসুবিধার জন্য ভর্তির নির্ধারিত সময়ে সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ করতে না পারলে তিনি প্রকল্প পরিচালক/উপ-পরিচালক বরাবরে আবেদনসহ ভর্তি হতে পারবে।

  • ৪. প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীকে স্ব-স্ব কোর্সের মেয়াদের মধ্যেই সম্পূর্ণ বকেয়া পরিশোধ করতে হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে বকেয়া পরিশোধ না করলে পরবর্তী ৭ দিনের মধ্যে ছাত্র/ছাত্রীকে লিখিত নোটিশের মাধ্যমে বেতন পরিশোধের সুযোগ দেয়া হবে। পরবর্তী ৭ দিনের মধ্যে নির্ধারিত জরিমানাসহ বকেয়া পরিশোধ করা যাবে। বেতন পরিশোধের নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার পর কোন ছাত্র/ছাত্রী বেতন ও অন্যান্য ফি বকেয়া থাকলে তাহার নির্ধারিত পরীক্ষা ও ক্লাসে উপস্থিতি বাতিল করা হবে।

  • ৫. বিভিন্ন প্রাকৃতিক ও রাজনৈতিক কারণে সেশন জট হলেও ৪নং শর্তাবলী বলবৎ থাকবে।

রেজিষ্ট্রেশন
  • প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে চুড়ান্ত পরীক্ষার পূর্বে সনদপত্রের জন্য নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। প্রশিক্ষণার্থীকে দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি প্রশিক্ষণ বিভাগের রেজিষ্ট্রার কার্যলয়ে জমা দিতে হবে। ছবি ও ফি জমা দেওয়ার সময় রেজিষ্ট্রার কার্যালয় হতে ছাপানো “রেজিষ্ট্রেশন ফরম” বিনামল্যে সংগ্রহ করতে হবে। রেজিষ্ট্রেশন ফরমটি পূরণ করে প্রশিক্ষণ বিভাগের রেজিষ্ট্রার কার্যলয়ে জমা করতে হবে।

বৃত্তি ব্যবস্থা
  • প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে চুড়ান্ত পরীক্ষার পূর্বে সনদপত্রের জন্য নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। প্রশিক্ষণার্থীকে দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি প্রশিক্ষণ বিভাগের রেজিষ্ট্রার কার্যলয়ে জমা দিতে হবে। ছবি ও ফি জমা দেওয়ার সময় রেজিষ্ট্রার কার্যালয় হতে ছাপানো “রেজিষ্ট্রেশন ফরম” বিনামল্যে সংগ্রহ করতে হবে। রেজিষ্ট্রেশন ফরমটি পূরণ করে প্রশিক্ষণ বিভাগের রেজিষ্ট্রার কার্যলয়ে জমা করতে হবে।

গ্রন্থাগারের ব্যবস্থা
  • প্রশিক্ষণার্থীদের মেধা বিকাশের সুবিধার্থে কারিগরি যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র একটি অস্থায়ী গ্রন্থাগার রয়েছে। এ গ্রন্থাগারে বিষয় ভিত্তিক পুস্তক ছাড়াও ধর্মীয় পুস্তক, সাময়িকী সাপ্তাহিক ও দৈনিক পত্রিকা ইত্যাদি রয়েছে যা একজন প্রশিক্ষণার্থী জ্ঞন আহরণের সহায়ক।

শিক্ষা সফর
  • প্রশিক্ষণার্থীদের মেধা বিকাশের লক্ষ্যে বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থানসমুহ এবং গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের ব্যবস্থা করা এবং ঐ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কারিগরি বিভাগের বিভিন্ন যন্ত্র পাতির কার্যকারিতা সম্পকে সম্যক ধারণা অর্জন বিশেষ ক্ষেত্রে বিভিন্ন নামী সরকারী/বেসরকারী প্রতিষ্ঠান/খামারে শিক্ষা সফরের ব্যবস্থা করা হবে।

Back to Top